মদনে মায়ের সামনে থেকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ : গ্রেপ্তার ২

0
63

শহীদুল ইসলাম, মদন (নেত্রকোনা ) প্রতিনিধি : নেত্রকোনা মদনে আত্মীয় বাড়ি থেকে ফেরার পথে সঙ্গবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক কিশোরী (১৪)। গত বৃহস্পতিবার রাতে কাইটাইল বাজারের পাশে মদন কেন্দুয়া সড়কে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার ভুক্তভোগী কিশোরীর বাবা মঙ্গলবার রাতে ৫ জনের নাম উল্লেখ করে মদন থানায় একটি মামলা দায়ের করেন, রাতেই মদন থানার পুলিশ অভিযান চালিয়ে ধর্ষক রাব্বী মিয়া ২৫ ও অন্তর মিয়া (২৩) দুইজন অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে মদন থানা পুলিশ। গ্রেফতার কৃত রাব্বি মিয়া বাশঁরী ( বাপলা) গ্রামের নূর মিয়ার ছেলে। অন্তর একই গ্রামের মন্জুল হকের ছেলে। বাকী আসামিরা একই গ্রামের বাসিন্দা।
স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার রাতে অটোরিক্সা যোগে মায়ের সঙ্গে কাইটাইল বাজারের পাশে এসে গাড়ি থেকে নামে কিশোরী ও তার মা। কিশোরী মা অটোরিক্সা ভাড়া দিতে গিয়ে কিছু বুজার আগেই আর একটি অটোরিক্সা উচ্চ শব্দে সাউন্ড বক্স বাজিয়ে মায়ের সামনে থেকে দ্রুত কিশোরূকে তোলে নিয়ে যায়। তখন কিশোরীর মার আত্ম চিৎকার শুরু করলে আশে পাশে লোকজন খুঁজাখুঁজি শুরু করেন।
এ দিকে ৫ বুকাটে যুবক কিশোরীকে তোলে নিয়ে বাড়ঁরী গ্রামে সেলিম মিয়ার ঘরে আটকে রেখে কিশোরীকে চেতনা নাশক ঔষধ কাইয়ে রাতভর পালা ক্রমে ধর্ষণ করে তারা। পরদিন দিন সকালে কিশোরীকে হত্যার ভয় দেখিয়ে আর এক দফা ধর্ষণ করার সময় প্রতিবেশী লোকজন বিষয়টি জানতে পারায় সাথে সাথে বুকাটে যুবকরা পালিয়ে যায়। তখন প্রতিবেশী লোকজন কিশোরীকে উদ্ধার করে পরিবারের লোকজনের নিকট বুঝিয়ে দেন।
মদন থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফেরদৌস আলম এ প্রতিনিধিকে জানান,সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার কিশোরীকে উদ্ধার করে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য নেত্রকোনা সদর হাসপাতালে পাটানো হয়েছে। এই ঘটনায় অভিযুক্ত ২ জনকে গ্রেফতার করে নেত্রকোনা কোর্ট হাজতে প্রেরন করা হয়েছে। ও বাকিদের গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত আছে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here