পূর্বধলায় দীর্ঘদিনপর শিক্ষার্থীদের পদচারনায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মুখরিত

0
135

মোঃ জায়েজুল ইসলাম : করোনা ভাইরাসের কারনে প্রায় দেড় বছর বন্ধ থাকার পর আজ রবিবার সারাদেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলে দেওয়া হয়েছে। প্রতিষ্ঠান খোলার প্রথম দিনে নেত্রকোণার পূর্বধলা উপজেলায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোকে শিক্ষার্থীদের পদচারনায় মুখরিত থাকতে দেখা গেছে। অনেকদিন পর শিক্ষার্থীদের উৎসবমুখর পরিবেশে আনন্দের সহিত বিদ্যালয়ে আসতে দেখা গেছে। অভিবাবকদের মাঝেও ফিরে এসেছে স্বস্তি।


খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উপজেলায় মাধ্যমিক, কারিগরি শিক্ষা, দাখিল মাদরাসা ও কলেজ মিলিয়ে ৬৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এছাড়া ১৭৫টি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও প্রায় ৫০টি কিন্ডারগার্টেন স্কুল রয়েছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলে দেওয়ার ঘোষনায় আগেই প্রতিষ্ঠানগুলো পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করা হয়েছে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিদ্যালয়ে আসার কথা শিক্ষার্থীদের জানান দেওয়া হয়েছে। সে অনুযায়ী প্রতিষ্ঠান খোলার প্রথমদিনে শিক্ষার্থীরা আনন্দের সহিত নির্ধারিত সময়ের আগেই বিদ্যালয়ে এসেছে। তবে সকল শ্রেণির শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয়ে আসার বারণ থাকলেও প্রথম দিনে যাদের আসার কথা ছিলনা তারাও বিদ্যালয়ের এসে ফিরে গেছে। আবার কিছু কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের মাঝে স্বাস্থ্য বিধি মানার বিষয়টি কিছুটা উপেক্ষিত হয়েছে। অনেকদিন পর প্রতিষ্ঠান খোলা উপলক্ষে প্রাথমিক বিদ্যালয় গুলি উপরের নির্দেশ অনুযায়ী বেলুন দিয়ে সজ্জিত করা হয়েছে। টানানো হয়েছে বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের পালনীয় নির্দেশাবলীর ব্যানার ফেস্টুন।


উপজেলার একাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানের সাথে আলাপ করে জানা গেছে দীর্ঘদিন পরে প্রতিষ্ঠান খোলা হওয়ায় শিক্ষার্থীরা নির্ধারিত সময়ের আগেই বিদ্যালয়ে এসেছে এবং স্বাস্থ্য বিধি মেনে প্রথম দিনের ক্লাস নেওয়া হয়েছে। ঘাগড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থী তাহিয়া নূর জান্নাত জয়া রানী দে, কাউসার আহমেদ জানান, দীর্ঘ দিন পর বিদ্যালয়ের আসতে পেরে খুব ভালা লাগছে।
ঘাগড়া দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী অভিভাবক শফিকুল ইসলাম খান চন্দন জানান অনেক দিন বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের লেখা পড়ায় অনেক ক্ষতি হয়েছে। এখন খোলে দেওয়ায় শিক্ষার্থীরা আবার লেখা পড়ায় মনোযোগী হবে।
উপজেলার পূর্বধলা জে.এম সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুধাংশু শেখর তালুকদার জানান, অধিদপ্তরের নির্দেশনা অনুযায়ী আগে থেকেই বিদ্যালয়গুলি পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করা হয়েছে এবং প্রথম দিনের ক্লাস স্বাস্থ্যবিধি মেনে সুন্দরভাবে সম্পন্ন হয়েছে। তবে প্রথমদিনে কিছু শিক্ষার্থী অনুপস্থিত থাকেলেও সামনে উপস্থিতির হার আরও বৃদ্ধি পাবে বলে তিনি জানান ।
উপজেলার কালডোয়ার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাকির আহমদ খান কামাল জানান স্কুল খোলার ঘোষনায় আগে থেকেই বিদ্যালয়গুলি পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করা হয়েছে এবং প্রথম দিনে উৎসব মুখর পরিবেশে পাঠদান করা হয়েছে।
উপজেলা শিক্ষা অফিসার আঞ্জুমান আরা জানান, সরকারি বিদ্যালয় গুলিতে প্রথম দিনে ৭৫ভাগ শিক্ষার্র্থী উপস্থিত ছিল। স্বাস্থ্যবিধি মেনে উৎসব মুখর পরিবেশে শিক্ষার্থীদের পাঠদান সম্পন্ন করা হয়েছে।
উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো: শফিকুল বারী জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রথম দিনের পাঠদান সুন্দরভাবে সম্পন্ন হয়েছে। তবে প্রথম দিনে প্রতিটি বিদ্যালয়ের প্রত্যেক শ্রেণিতে কিছু শিক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিল। তবে কিছুদিন গেলে উপস্থিতির হার আরও বৃদ্ধিপাবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here