পরিচিত হই ভবিষ্যতের নতুন কিছু খাবারের সাথে

0
54

আরবান ডেস্ক : আগামী দিনে পাঁচ রকম নতুন খাবার আসছে। বৈশ্বিকভাবে আমাদের ক্যালরির ৯০ শতাংশ আসে মাত্র ১৫টি শস্য থেকে। ৪০০ কোটি মানুষ মাত্র তিনটি শস্যের ওপর নির্ভরশীল—চাল, গম আর ভুট্টা। কিন্ত জলবায়ু পরিবর্তন শস্য উৎপাদনের বড় বাধা হচ্ছে। আবার ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধ প্রধান খাদ্যশস্যের দাম বাড়ার জন্য দায়ী। লন্ডনের রয়েল বোটানিক্যাল কিউ গার্ডেনের বিজ্ঞানীরা ভোজ্য আরও উদ্ভিদের সন্ধানে আছেন। হয়তো এগুলো হতে পারে পরিবর্তিত বিশ্বে মানুষের খাবার।
এ রকম পাঁটি খাবার নিচে দেওয়া হলো:
কুকামেলনস : এটা মুচমুচে কুড়মুড়ে ছোট সবজি। এর স্বাদ হলো শসা আর লেবুর মিশেল। খরা আর পোকা–পতঙ্গ এদের কিছু করতে পারে না।
সালাদে এর সংযোজন হবে দারুণ।
মাশুয়া : এটি আলুর মতো। এর উৎস আন্দিজ পর্বতমালা। এর মূলের স্বাদ শর্ষের মতো। জন্মাতে সময় লাগে কম আর গজানো সহজ।
পানডানুস : আনারসি এই ফল কাঁচা খাওয়া যায় আবার রান্না করেও খাওয়া যায়। এই বৃক্ষ সহ্য করতে পারে খরা, ঝোড়ো বাতাস আর নোনা জল।
এনসেট : মেকি কলা। কলার সমগোত্রীয় এই ফল এরই মধ্যে ইথিওপিয়ার দুই কোটি লোকের আহার্য হয়ে আছে। খরা, বন্যা আর উচ্চ তাপমাত্রা সহ্য করতে পারে এটি। এর কাণ্ড আর মূল দিয়ে তৈরি করা যায় পরিজ আর রুটি।
ল্যাব ল্যাব বিন : এর অপর নাম হায়াসিন বিন। লৌহ, ম্যাগনেসিয়াম আর প্রোটিনের উৎস। শুকনা, খারাপ ও দূষিত জমিতেও জন্মায় এটি।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here