নেত্রকোণায় বন্যার পানি কমতে শুরু করেছে : ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম জোরদার

0
62

এ কে এম আব্দুল্লাহ্, নেত্রকোণা প্রতিনিধি : গত ২৪ ঘন্টায় কোন বৃষ্টিপাত না হওয়ায় এবং তিন দিন পর সূর্য উঠায় নেত্রকোনায় বন্যার পানি কমতে শুরু করেছে।
স্থানীয় এলাকাবাসী ও মদন উপজেলা প্রশাসনের সাথে কথা বলে জানা যায়, টানা ভারী বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলে নেত্রকোনা জেলার সীমান্তবর্তী উপজেলা দূর্গাপুর, কলমাকান্দা, বারহাট্টা ও খালিয়াজুরী উপজেলার পাশাপাশি মদন উপজেলার ৮টি ইউনিয়ন ও পৌরসভার ৮০ ভাগ এলাকা প্লাবিত হয়েছিল।
মদন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার বুলবুল আহমেদ ও পৌর মেয়র সাইফুল ইসলাম সাইফ মঙ্গলবার দিনব্যাপী বিভিন্ন স্থানে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন।
মদন উপজেলা নির্বাহী অফিসার বুলবুল আহমেদ জানান, বন্যায় একজন মানুষও খাদ্যের অভাবে যাতে কষ্ট না পায় সরকারের এ ধরণের নির্দেশের পরপরই মদন উপজেলা নির্বাহী অফিসার স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, স্কাইট, স্বেচ্ছাসেবক, এবং কমিউনিটি লিডারদের সমন্বয়ে ২০ বিশেষ টিম গঠন করেছে। উক্ত টিম ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় গিয়ে ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকা তৈরী ও সঠিকভাবে ত্রাণ বিতরণ করা হচ্ছে কি না তা সার্বক্ষনিক মনিটরিং করছে। তিনি আরো জানান, মদনে প্রায় ৫১ হাজার লোক পানিবন্ধী হয়ে পড়েছে। তাদেরকে উদ্ধার করে ৫১টি আশ্রয় কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এ পর্যন্ত বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে নগদ সাড়ে তিন লক্ষ টাকা, ৪৫ মেট্রিক টন চালও ৭ শত প্যাকেট শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়াও বানভাসী মানুষের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে ৯টি মেডিকেল টিম কাজ করছে।
নেত্রকোনা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী এম এল সৈকত জানান, নেত্রকোনা জেলার প্রধান প্রধান নদ-নদীর পানি কমতে শুরু করেছে। কলমাকান্দা উপজেলার উব্দাখালি নদীর পানি বিপদসীমার ৭৭ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে, কংশ নদীর জারিয়া পয়েন্টে ০৩ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে ও খালিয়াজুরীর ধনু নদের পানি ৫৩ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here