ট্রাম্পকে অভিশংসনে ভোটের প্রস্তুতি ডেমোক্র্যাটদের

0
64

আরবান ডেস্ক : মার্কিন গণতন্ত্রের প্রতীক বলে পরিচিত ক্যাপিটল হিলে সহিংসতার প্রেক্ষাপটে দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে অভিশংসনে ভোটের প্রস্তুতি নিচ্ছে ডেমোক্র্যাটরা।
জ্যেষ্ঠ এক ডেমোক্র্যাট নেতার বরাত দিয়ে সোমবার বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
যু্ক্তরাষ্ট্রের হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের হুইপ জেমস ক্লাইবার্ন জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে অভিশংসনের বিষয়ে একটি আর্টিকেলের ওপর মঙ্গলবারের মধ্যেই হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসে ভোট হতে পারে।
আগামী ২০ জানুয়ারি মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ডোনাল্ড ট্রাম্পের শেষ দিন। তার কয়েকদিন আগেই ট্রাম্পের বিরুদ্ধে উন্মত্ত জনতাকে ‘অভ্যুত্থানে প্ররোচনা’ দেওয়ার অভিযোগ এনে তাকে অভিশংসনের পরিকল্পনা করছেন ডেমোক্র্যাটরা।
বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যদি অভিশংসন প্রক্রিয়া পরিকল্পনা মাফিক এগোয় তাহলে ডোনাল্ড ট্রাম্প হবেন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে দুইবার অভিশংসন হওয়া একমাত্র প্রেসিডেন্ট। অবশ্য তার জন্য অভিশংসনের অভিযোগটি হাউসে ভোটে পাস হতে হবে। তারপর বিষয়টি সিনেটে যাবে, যেখানে প্রেসিডেন্টকে অপসারণ করতে দুই তৃতীয়াংশ ভোট দরকার হবে।
শুধু ডেমোক্র্যাট নয়, এমনকি রিপাবলিকানদের অনেকেই ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সেদিন সমর্থকদের উস্কে দেওয়ার অভিযোগ করছেন। রিপাবলিকান সিনেটর প্যাট টুমি পদত্যাগ দাবি করেছেন ট্রাম্পের।
তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় দেশের জন্য এখন সবচেয়ে ভালো হবে যদি ডোনাল্ড ট্রাম্প পদত্যাগ করে দ্রুত বিদায় নেন। আমি জানি তা হয়তো হবে না। কিন্তু এটা হলেই ভালো হতো।’
এর আগে আলাস্কার রিপাবলিকান সিনেটর লিসা মারকাউস্কি প্রথম ডোনাল্ড.ট্রাম্পের পদত্যাগ দাবি করেছিলেন। নেব্রাস্কার রিপাবলিকান সিনেটর বেন স্যাসেও ট্রাম্পের অভিশংসন নিয়ে কথা বলেন।
এ ছাড়া আরও এক রিপাবলিকান, ক্যালিফোর্নিয়ার সাবেক গভর্নর আর্নল্ড সোয়ার্জনেগার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ‘সবচেয়ে জঘন্য প্রেসিডেন্ট’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন।
তবে অভিশংসনের অভিযোগ উঠলে রিপাবলিকানদের কেউ ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ভোট দেওয়ার কোনো ইঙ্গিত এখনও দেননি।
হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে অভিশংসনের উদ্যোগকে রাজনৈতিক চাল উল্লেখ করে বলা হয়েছে, এতে দেশের মধ্যে বিভাজন আরও বৃদ্ধি পাবে।
এদিকে ডোনাল্ড ট্রাম্প তার প্রিয় সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম টুইটারে নিষিদ্ধ হওয়ার পর থেকে প্রকাশ্যে কোনো মন্তব্য করেননি। তবে রোববার হোয়াইট হাউস থেকে জানানো হয়েছে, মেক্সিকোর সঙ্গে সীমান্তে যে দেয়াল নির্মাণ করা হচ্ছে তার কাজ পরিদর্শন করতে মঙ্গলবার টেক্সাসে যাবেন ট্রাম্প।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here